ইশা ছাত্র আন্দোলনের চট্টগ্রাম মহানগরের “নগর সম্মেলন” ২০ অনুষ্ঠিত

0
158

নিজস্ব প্রতিনিধি : অদ্য ১৬ই ডিসেম্বর, ২০১৯ রোজ সোমবার বিকেল ২টায় ইসলামী শাসনতন্ত্র ছাত্র আন্দোলন চট্টগ্রাম মহানগরের “নগর সম্মেলন ২০২০” অনুষ্ঠিত হয়।

ইসলামী শাসনতন্ত্র ছাত্র আন্দোলন চট্টগ্রাম মহানগরের সাংগঠনিক সম্পাদক মুহাম্মদ নাজিম উদ্দীনের সঞ্চালনায় এতে সভাপতিত্ব করেন শাখা সভাপতি রিদওয়ানুল হক শামসী। প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের কেন্দ্রীয় শিল্প ও বাণিজ্য বিষয়ক সম্পাদক এবং ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ চট্টগ্রাম মহানগরের সভাপতি আলহাজ্ব মুহাম্মদ জান্নাতুল ইসলাম। প্রধান বক্তা হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ইসলামী শাসনতন্ত্র ছাত্র আন্দোলনের কেন্দ্রীয় সহ-সভাপতি মুহাম্মদ আব্দুল জলিল।

সম্মেলনের শুরুতে স্বাগত বক্তব্যে সম্মেলন সভাপতি রিদওয়ানুল হক শামসী সবাইকে বিজয় দিবসের শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জানান। তিনি বলেন, ‘আজ আমরা বিজয়ের ৪৮ বছর উদযাপন করছি। এজন্য আমরা আল্লাহর দরবারে শুকরিয়া জানাই। আমরা অত্যন্ত সৌভাগ্যবান জাতি, পৃথিবীর অনেক জাতিগোষ্ঠীই স্বাধীনতার স্বাদ পায়নি। কিন্তু আমাদের মনে রাখতে হবে স্বাধীনতা অর্জনের চেয়ে স্বাধীনতা রক্ষা করা আরও কঠিন। তাই আসুন স্বাধীনতার প্রকৃত তাৎপর্য উপলব্ধি করে তা রক্ষায় সচেষ্ট হয়।’

প্রধান অতিথি তার বক্তব্যের শুরুতে মহান মুক্তিযুদ্ধের সকল শহীদদের আত্মার মাগফিরাত কামনা করে বলেন, “মুক্তিযুদ্ধের ঘোষণাপত্রে উল্লেখ ছিল সাম্য, মানবিক মর্যাদা ও সামাজিক ন্যায়বিচার প্রতিষ্ঠার জন্য এ সংগ্রাম। কিন্তু স্বাধীনতার পর থেকে এখন পর্যন্ত যারাই ক্ষমতায় এসেছে কেউই তার দিকে লক্ষ্য রাখেনি। যার ফলে দেশের মানুষ এখন পর্যন্ত স্বাধীনতার প্রকৃত স্বাদ পায়নি। এখন পর্যন্ত আমাদের মাঝে কে স্বাধীনতার পক্ষে আর কে বিপক্ষে তা নিয়ে রীতিমতো লড়াই চলে। দেশের সার্বভৌমত্ব আজ হুমকির মুখে। তাই আজ আমাদের আরেকটি লড়াইয়ের প্রস্তুতি নিতে হবে যার মাধ্যমে স্বাধীনতার প্রকৃত উদ্দেশ্য বাস্তবায়িত হবে, এদেশের সার্বভৌমত্ব রক্ষা পাবে।’

প্রধান বক্তার বক্তব্যে কেন্দ্রীয় সহ-সভাপতি মুহাম্মদ আবদুল জলিল বলেন, “আমরা যখন একদিকে স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তী উদযাপনের প্রস্তুতি নিচ্ছি, কিন্তু অন্যদিকে মানব উন্নয়নের সকল সূচকেই আমাদের অবস্থান একদম তলানিতে। না শিক্ষা, না স্বাস্থ্য, না জীবনের নিরাপত্তা! কোনোদিক থেকেই বাংলাদেশের অবস্থান এখন সভ্য দেশের কাতারে পড়ে না। এর থেকে উত্তরণে ইসলামী শাসনতন্ত্র ছাত্র আন্দোলনকেই দায়িত্ব নিতে হবে। এদেশের স্বাধীনতা- সার্বভৌমত্ব রক্ষায় ইশা ছাত্র আন্দোলনের প্রত্যেক মুবাল্লিগ- কর্মী- সদস্য কে অতন্ত্র প্রহরীর ভূমিকা পালন করতে হবে।”

বিশেষ অতিথি হিসেবে আরও বক্তব্য রাখেন ইসলামী যুব আন্দোলন চট্টগ্রাম মহানগরের সভাপতি তাজুল ইসলাম শাহীন, ইশা ছাত্র আন্দোলন চট্টগ্রাম মহানগরের সাবেক সাধারণ সম্পাদক মুহাম্মদ শাহীন হাওলাদার, ইশা ছাত্র আন্দোলন পটিয়া সাংগঠনিক জেলা শাখার সভাপতি আব্দুল্লাহ আল মারুফ প্রমুখ।

আরও বক্তব্য রাখেন ইশা ছাত্র আন্দোলন চট্টগ্রাম মহানগরের সহ-সভাপতি মুহাম্মদ আসহাব উদ্দিন, প্রশিক্ষণ সম্পাদক তানভীর হোসাইন, অর্থ সম্পাদক মুহাম্মদ ওয়াহিদুর রহমান সহ নগর ও থানাসমূহের দায়িত্বশীলবৃন্দ।

এতে উপস্থিত ছিলেন নগর আওতাধীন থানা, ওয়ার্ড ও ইউনিট শাখাসমূহের দায়িত্বশীল ও সদস্যগণ।

সম্মেলন শেষে কেন্দ্রীয় সহ-সভাপতি মুহাম্মদ আবদুল জলিল বিগত ২০১৯ সেশনের কমিটি বিলুপ্ত করে ২০২০ সেশনের জন্য উর্ধ্বতন ৩ জনের নতুন কমিটি ঘোষনা করেন। এতে সভাপতি হিসেবে রিদওয়ানুল হক শামসী, সহ-সভাপতি মুহাম্মদ তানভীর হোসাইন এবং সাধারণ সম্পাদক হিসেবে মুহাম্মদ নাজিম উদ্দীনকে মনোনীত করেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here