ইসলামিক ফাউন্ডেশন পরিচালিত দারুল আরকাম মাদরাসা শিক্ষকদের মানবেতর জীবনযাপন।

0
74

যথাযথ দায়িত্ব পালন সত্বেও ৫ মাস ধরে বেতন পান না শিক্ষকরা

অনতিবিলম্বে ঈদ বোনাসসহ বকেয়া বেতন পরিশোধ করুন
…………………. জাতীয় শিক্ষক ফোরাম

জাতীয় শিক্ষক ফোরাম এর কেন্দ্রীয় সভাপতি অধ্যাপক মাহবুবুর রহমান, সেক্রেটারি জেনারেল মাওলানা এবিএম জাকারিয়া এবং জয়েন্ট সেক্রেটারি জেনারেল এমএ সবুর এক যুক্ত বিবৃতিতে অনতিবিলম্বে শিক্ষকদের ন্যায্য পাওনা পরিশোধের জোর দাবি জানান।
নেতৃবৃন্দ বলেন, ইসলামি ফাউন্ডেশন যাচাই-বাছাই করে যোগ্যদের নিয়োগ প্রদান করেছে এবং এই যোগ্য শিক্ষকরাই নিয়মতান্ত্রিকভাবে শিক্ষার্থীদের পাঠদান করে আসছেন। তবুও কেন বেতন- ভাতা প্রদানে গড়িমসি করা হচ্ছে।
ভুক্তভোগী এক শিক্ষক হাফেজ মুফতি আতিক হাসান বলেন, সরকারি ছুটির আগ পর্যন্ত আমরা নিয়মতান্ত্রিকভাবে পাঠ দান অব্যহত রেখেছি। কর্তৃপক্ষের যাবতীয় নির্দেশনা আমরা যথাযথভাবে পালন করেছি এখনও করছি।
অথচ নতুন প্রকল্প অনুমোদন না হওয়ার অযুহাত দেখিয়ে কর্তৃপক্ষ আমাদের বেতন- ভাতা বন্ধ রেখেছে।
শিক্ষকদের বেতন- ভাতা পরিশোধ প্রসঙ্গে শিক্ষক নেতৃবৃন্দ আরও বলেন,
ইসলামী ফাউন্ডেশনের আওতায় মসজিদ মন্দির এবং মক্তব ভিত্তিক শিশু ও গণ শিক্ষা কার্যক্রম প্রকল্পের মেয়াদ গত ডিসেম্বরে শেষ হয়েছে। কিন্তু শিক্ষকরা তাদের পাঠদান বন্ধ করেন নি।

যেহেতু প্রতিষ্ঠান চালু আছে যেহেতু কর্তৃপক্ষের দায়িত্ব হচ্ছে সময়মত বেতন- ভাতা পরিশোধ করা। অথচ তারা নতুন প্রকল্প চালুর দোহায় দিয়ে শিক্ষকদের মানবেতর জীবনযাপন এর দিকে ঠেলে দিয়েছেন। যা খুবই অমানবিক।

তারা যথাযথ কর্তৃপক্ষের প্রতি উদাত্ত আহ্বান জানিয়ে বলেন, নতুন প্রকল্প চালু যখনই হোক না কেন বিশেষ বরাদ্দের মাধ্যমে শিক্ষকদের চাহিদা পূরণ করুন।
শিক্ষক এবং তাদের পরিবারের সদস্যদের মুখে হাসি ফুটানো সরকারের নৈতিক দায়িত্ব।

বার্তা প্রেরক
এম এ সবুর
জয়েন্ট সেক্রেটারি জেনারেল
জাতীয় শিক্ষক ফোরাম
১৭.০৫. ২০২০ইং

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here